মীরসরাইয়ে ২শ কোটি টাকা ব্যয়ে সেতুসহ ৯০ প্রকল্পের উদ্বোধন

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥
মীরসরাইয়ে ২শ কোটি টাকার ৯০ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী, আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার ঘোপাল ইউনিয়নের আলোকদিয়া গ্রামের সাথে মীরসরাই উপজেলার ধুম ইউনিয়নের মানুষের সংযোগ স্থাপনের লক্ষ্যে ফেনী নদীর উপর ৩০ কোটি টাকা ব্যায়ে ২৫২ মিটার দৈর্ঘ্যের পিসি গার্ডার সেতুর ভিত্তিপ্রস্তরের ফলক উন্মোচন করা হয়। পরে বারইয়ারহাট পৌরসভার ৩৫টি প্রকল্পের, মীরসরাই পৌরসভার ১০টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও উদ্বোধন করেন। বেলা ১২টার দিকে উপজেলা সদরে এসে ৪৫টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধান অতিথি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। এই ৯০টি প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২শ কোটি টাকা। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ জসীম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিনহাজুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এম আলা উদ্দিন, মীরসরাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক একেএম জাহাঙ্গীর ভূঁইয়া, বারইয়ারহাট পৌরমেয়র ভিপি নিজাম উদ্দিন, মীরসরাই পৌরমেয়র গিয়াস উদ্দিন, প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান, জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নুর হোসেন মামুন, করেরহাট ইউপি চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, মীরসরাই সদর ইউপি চেয়ারম্যান এমরান উদ্দিন,মঘাদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন মাষ্টার, হিঙ্গুলী ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ, উত্তরজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন তপু, হিঙ্গুলী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সোনা মিয়া সওদাগর, জোরারগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মাষ্টার, মীরসরাই উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল ভূঁইয়া প্রমুখ।

ধুম সেতু বাস্তবায়ন ও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প প্রসঙ্গে মীরসরাইয়ের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘ পদ্মা সেতু নির্মাণের মতো এটি সরকারের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের একটি ধারাবাহিক উন্নয়ন প্রকল্প। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক প্রচেষ্টার বহিঃপ্রকাশ।’ নতুন এ সেতু মীরসরাই-ছাগলনাইয়া উপজেলা এলাকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি ঘটাবে উল্লেখ করে সরকারের সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘একসময় দেখতাম নদীর ওপারের আলোকদিয়া গ্রামের মানুষ অনেক কষ্টে নদী পার হতো। আশা করছি মানুষের এতদিনের কষ্ট দূর হবে। তারা এ সেতুর মাধ্যমে মীরসরাইয়ে পার হয়ে এখানকার শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক সুবিধা ভোগ করতে পারবে।’

মীরসরাই উপজেলা প্রকৌশল অফিস জানায়, ফেনী নদীর ওপর জনগুরুত্বপূর্ণ এ সেতু নির্মাণ করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। এতে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ৩০ কোটি টাকা। এটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে চলতি বছর সেপ্টেম্বর মাসে। এটি বাস্তবায়নে যৌথভাবে কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সুরমা এন্টার প্রাইজ ও হক ট্রেডার্স জেবি। কার্যাদেশ অনুযায়ী এটির কাজ শেষ হতে সময় লাগবে প্রায় ৩২ মাস। অর্থ্যাৎ আগামী ২০২২ সালের অক্টোবর মাসে এটি যানবাহন ও সাধারণ মানুষের পারাপারের জন্য খুলে দেয়া হবে। ধুম সেতু নামের ওই সেতু নির্মাণের উদ্যোগের ফলে নদীর দু’পারের মানুষের যোগাযোগে এক নতুন মাত্রা সূচিত হতে যাচ্ছে

এদিকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মীরসরাই উপজেলা প্রকৌশলী মো. কামরুজ্জামান জানান, মীরসরাইয়ের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় জনগুরুত্বপূর্ণ এ সেতু নির্মিত হচ্ছে। ফেনী নদীর ওপর নির্মাণাধীন এ সেতুর কাজ শেষ হবে ২০২২ সালের অক্টোবর মাসে। ওইসময় যান চলাচল ও সাধারণ জনগণের পারাপারের জন্য এটি উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।