গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর, প্রাণ গেল যুবকের

নাছির উদ্দিন ॥ মীরসরাইয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার সকালে উপজেলার জোরারগঞ্জের চায়নার বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মীর হোসেন উপজেলার করেরহাট ইউপির দক্ষিণ অলিনগর গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে।

নিহতের বাবা বলেন, ১ লা জুলাই অলিনগরে রবিউল হোসেন ভুট্টুর সঙ্গে ইয়াবা সেবন নিয়ে মীর হোসেনের কথাকাটি হয়। এ নিয়ে মীর হোসেন ভুট্টুকে আঘাত করলে ভুট্টুর লোকজন আমাকে তুলে নিয়ে মারধর করে। এ জন্য হাসপাতালে চিকিৎসা নিই। এছাড়া আমাদের হয়রানি করতে ভট্টু বাদী হয়ে জোরারগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় ডাকা সালিশে ২০ হাজার টাকা জরিমানা দেই।

তিনি আরো বলেন, শনিবার মীর হোসেনকে মুঠোফোনে ঝামেলা শেষ হওয়ার খবর জানিয়ে দেখা করতে বলে ভুট্টু। মীর রোববার সকালে ভুট্টুর সঙ্গে দেখা করতে গেলে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে লাঠি ও রড় দিয়ে মারধর করে। এতে মীর রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুঠিয়ে পড়ে। এ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশকে অবগত করলে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

নিহতের মা তাহেরের নেছা বলেন, ছেলে তোয়ালে কারখানয় কাজ করে। এক সপ্তাহ আগে ছেলে বাড়িতে এসেছে। তার সংসারে একটি আট বছরের মেয়ে ও ছয় বছরের ছেলে রয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

জোরারগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মোজাম্মেল হক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে আহত মীরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেই। পরে চিকিৎসকের পরামর্শে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নেয়ার পথে বিকেলে তার মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কয়েকজনকে আটক করেছি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।