খাগড়াছড়ির গুইমারাতে মোটর সাইকেল চালকের লাশ উদ্ধার, প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ, গাড়ি ভাংচুর, আহত ২, আটক ২

শ্যামল রুদ্র, খাগড়াছড়ি ॥ খাগড়াছড়ির গুইমারাতে মোটর সাইকেল চালক আকিব উদ্দিন রাকিব (১৮) কে অপহরণের পর হত্যা ও মোটর সাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে গুইমারা উপজেলা। সকাল ৮টায় ঘটনার প্রতিবাদে জালিয়াপাড়া চৌরাস্তায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধসহ বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা। দুপুর ২টা পর্যন্ত চলে এ অবরোধ। এসময় পুলিশ বহণকারী একটি মাহিন্দ্র পিকআপসহ বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করে উত্তেজিত জনতা। এ ঘটনায় ২জন আহত হয়েছেন। ঘটনার জন্য গুইমারা থানার ওসি বিদ্যুৎ বড়ুয়ার অবহেলাকে দায়ী করে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচার দাবী করেছে নিহত রাকিবের পরিবার সহ স্থানীয়রা। অবরোধের কারণে দুর্ভোগে পড়ে দূর পাল্লার যাত্রীরা। এদিকে দুপুর ২টার দিকে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সেনাবাহিনী, উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সুবিচারের আশ্বাসে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।


গত মঙ্গলবার (৩ মার্চ) রাত দশটায় ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেলে করে যাত্রী নিয়ে উপজেলার আমতলী নামক সীমান্তবর্তী এলাকায় যায় চালক রাকিব। এসময় রাকিব’কে হত্যা করে মাটিতে পুতেরেখে মোটর সাইকেল ছিনিয়ে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। নিহত চালক রাকিব গুইমারা উপজেলার কালাপানি এলাকার ইকবাল হোসেনের ছেলে।
নিহতের পিতা ইকবাল হোসেন জানান, মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করতে গেলে ওসি বিদ্যুৎ কুমার বড়ুয়া মামলা না নিয়ে তাকে পাগল ও মদখোর বলে থানা থেকে বের করে দেয়। এরপর আরো কয়েক দফায় মামলা করতে গিয়েও ব্যর্থ হয়ে পরে ৯৯৯এ ফোন করার পর গতকাল রাত ১২টার সময় মামলা গ্রহণ করে ওসি।


এদিকে খাগড়াছড়ির মহালছড়ি থানা পুলিশ বুধবার রাত তিনটার দিকে সাচিং মারমা সহ দুই ব্যাক্তিকে মোটরসাইকেল সহ গ্রেপ্তার করে। পরে সাচিং এর জবানবন্দি অনুযায়ী রাকিব’র লাশ উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনার এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে জালিয়পাড়া পুলিশ বক্সে ওসি বিদ্যুৎ কুমার বড়ুয়াকে অবরুদ্ধ করে জুতা ঝাড়ু নিয়ে স্থানীয় নারী-পুরুষ বিক্ষোভ জানিয়ে তার অপসারণ ও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান। এসময় গুইমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তুষার আহমদ, সেনাবাহিনী, আনসার ও পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে দুপুর ২টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে এবং যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। জানতে চাইলে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মাটিরাঙ্গা সার্কেল) খোরশেদ আলম সাংবাদিকদের বলেন, রাকিব হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং গুইমারা থানার ওসি বিদ্যুৎ বড়ুয়ার দায়িত্বে অবহেলার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগ যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।